Mohun Bagan rally
Featured ক্রীড়া ফুটবল সূচনা

গর্বের মিছিল থেকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর নামে অশালীন মন্তব্য, করোনা আবহে এই উল্লাস বহু প্রশ্নের জন্ম দিয়ে গেল

রবিবার সকাল থেকে শহরের রঙ হয়েছিল সবুজ মেরুন। শরতের কলকাতায় এই চিত্র যদিও পরিচিত। তবে এবারের পরিস্থিতি অন্যরকম। তবে ক্লাবে আইলিগ এসেছে আর উৎসবের রঙ সবুজ মেরুন হবে না, তা কি করে হয়। রবিবার সকালে বাইপাসের ধারে পাঁচতারা হোটেলে মোহনবাগান কর্তাদের হাতে ভারত সেরার ট্রফি তুলে দেন আইলিগ সিও সুনন্দ ধর। ট্রফি নিয়ে শুরু হয় মিছিল (Mohun Bagan rally)। উত্তর থেকে দক্ষিন কলকাতা, দুই প্রান্ত রবিবার সকাল থেকেই চলে আসে মোহনবাগান সমর্থকদের দখলে। ক্লাব আইলিগ চ্যাম্পিয়ন, সমর্থকরা উৎসবে সামিল হবেন তা স্বাভাবিক। কিন্তু এই উৎসবের চিত্র একাধিক প্রশ্নের সামনে দাঁড় করিয়ে দিল আমাদের।
কোথাও শত শত বাইকের মিছিল তো কোথাও রাস্তায় নেমে উৎসবে সামিল সমর্থকরা। এই পরিস্থিতিতে এমন ঝুঁকি নিয়ে কি সত্যি এমন মিছিল আয়োজন করার কোন দরকার ছিল? অনেকক্ষেত্রে সমর্থকদের মুখে মাস্ক দেখা যায়নি। সমর্থকদের সংযত থাকতে ক্লাব থেকে কোন নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল? না দিলে, কেন দেওয়া হয়নি?

আরও পড়ুন- তিন কোটি টাকার চুক্তিতে ইস্টবেঙ্গলে আসছেন এই অস্ট্রেলীয় তারকা ফুটবলার, কে তিনি?

ক্রীড়া মহল চিন্তিত আরও একটি বিষয়। শেষ কবে যুবভারতী প্রাঙ্গন এমন ছবি দেখেছিল, জানতে অতীতের ডার্বির স্মৃতির পাতা ওল্টাতে হবে। তবে ঐতিহ্যবাহী ইস্টবেঙ্গলমোহনবাগান সৌহার্দ্য আজ কিছু ক্ষেত্রে বজায় রাখতে ব্যর্থ হয়েছেন সবুজ মেরুন সমর্থকরা। মিছিল থেকে ইস্টবেঙ্গল ও লাল হলুদ রঙকে নিয়ে একাধিকবার শোনা গেছে কটু কথা। প্রাক্তনীদের কথায়, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের মধ্যে ব্যঙ্গ বিদ্রুপ থাকবে। সবটা হবে শালীনতা বজায় রেখে। আজ কিছুক্ষেত্রে যে চিত্র সামনে এসেছে, বাংলার ফুটবল কখনোই এই চিত্রের সাথে পরিচিত নয়। তাও এমন গৌরবের মুহুর্তে। যদিও এই ঘটনাকে গুরুত্ব দিতে নারাজ ইস্টবেঙ্গল। বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রোল করা হয় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে। এটা একটা ট্রেন্ড। যার একটি অংশ আজ মিছিলের কিছু জায়গায় দেখা গেলো। কিন্তু যারা এই ঘটনার সাথে যুক্ত হলেন তারা আদৌ কি ঐতিহ্যবাহী মোহনবাগানের প্রতিনিধিত্ব করার যোগ্য? প্রশ্ন তুলেছে লাল হলুদ শিবির।

খবরের সাথে থাকতে এখনই আমাদের ফেসবুক পেজ Nabadin.com  লাইক করে সাথে থাকুন। সাথে ট্যুইটারে Nabadin24News আমরা পৌঁছে যাব আপনার কাছে। আর এখন থেকে সব খবরের বিস্তারিত তথ্য থাকবে ইউটিউব ভিডিওতে। তাই আমাদের ইউটিউব চ্যানেল Nabadin News  সাবস্ক্রাইব করে সবসময় থাকুন খবরের সঙ্গে৷ আর আমরা আছি আপনার জন্য।

সাম্প্রতিক শিরোনাম:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *